Bhalukanews.com

যেসব ক্রিকেটারদের বিদেশি বউ

আন্তর্জাতিক:: আন্তর্জাতিক ক্রিকেট ক্যারিয়ারকে মেলে ধরতে গিয়ে কখনও কখনও জীবনকেই ‘আন্তর্জাতিক’ করতে হয়েছে ক্রিকেটারদের। তারই ধারাবাহিকতায় বিদেশ-বিভূঁইয়ে প্রেমে পড়া, বিয়ে করা। ক্রিকেটারদের সেই তালিকাটা বেশ দীর্ঘ। তার মধ্যে সবচেয়ে আলোচিত পাঁচটি বিয়ে নিয়ে এই আয়োজন :

সানিয়া মির্জা-শোয়েব মালিক

*

ভারত-পাকিস্তান দ্বৈরথ আটকিয়ে শান্তির মেলবন্ধন গড়েছিলেন পাকিস্তানের সাবেক অধিনায়ক শোয়েব মালিক ও ভারতীয় টেনিস তারকা সানিয়া মির্জা। দুজন চুটিয়ে প্রেম করার পর যখন বিয়ের পিঁড়িতে বসবেন, তখনও কম বিপাকে পড়তে হয়নি এই দম্পতিকে। ভারত-পাকিস্তান বলেই কিনা, বিয়ে ভাঙার জন্য কয়েকদফা হুমকি দেওয়া হয় তাদেরকে। শেষপর্যন্ত অবশ্য পরিণতি ঘটিয়েই ছেড়েছেন সানিয়া-শোয়েব। ২০১০ সালের ১২ এপ্রিলে বিয়ে করার পর এখন ‘আন্তর্জাতিক’ দম্পতিতে পরিণত হয়েছেন তারা।

ইমরান খান-জেমিমা গোল্ডস্মিথ

*

ব্রিটিশ সাংবাদিক জেমিমা গোল্ডস্মিথকে বিয়ে করে আলোচনায় আসেন পাকিস্তানের কিংবদন্তি সাবেক অধিনায়ক ইমরান খান। ইমরান খানকে বিয়ে করে ইসলাম ধর্মও গ্রহণ করেন তিনি। পাকিস্তানের সংস্কৃতির সঙ্গে মানিয়ে নেওয়ার জন্য অনেক চেষ্টা করেছেন। পোশাকও পরতেন পাকিস্তানের, শিখতেন উর্দু ভাষা। কিন্তু শেষপর্যন্ত বিয়ে টেকেনি। দুই সন্তান থাকাকালীন ২০০৪ সালের ২২ জুন তালাকনামায় সাক্ষর করেন দুজন। কারণ হিসেবে বলা হয়, ‘পাকিস্তানের পরিবেশে নিজেকে মানাতে পারছেন না জেমিমা।’

এই বিয়ের পর লিবিয়ান রেহেম খানকে বিয়ে করেন ইমরান। সেটা ২০১৫ সালে। এক বছরের মাথায় সেটাও টেকেনি।

শন টেইট- মাসুম সিং

*

ভারতেও নয়, অস্ট্রেলিয়াতেও নয়। প্যারিসে পরিচয় হয়েছিলো অস্ট্রেলিয়ান ফাস্ট বোলার শন টেইট ও ভারতীয় র‍্যাম্প মডেল মাসুম সিংয়ের। সেখান থেকেই শুরু। টানা চার বছর চুটিয়ে প্রেম করার পর ২০০৪ সালে বিয়ে করেন দুজনে। বিয়েটাও হয়েছিলো মনে রাখার মতো। অস্ট্রেলিয়ান টেইট পুরো পরিবারকে নিয়ে মুম্বাইতে আসেন বিয়ে করতে। টানা এক সপ্তাহ অনুষ্ঠানে বিয়ে হয় দুজনের। সেখানে জহির খান, যুবরাজ সিংয়ের মতো ভারতীয় ক্রিকেটাররাও উপস্থিত ছিলেন।

মুত্তিয়া মুরালিধরন- মাধিমালার রামামূর্তি

*

চেন্নাইয়ের মেয়ে মাধিমালারের সঙ্গে শ্রীলঙ্কান স্পিন কিংবদন্তি মুত্তিয়া মুরালিধরনের বিয়েটা বেশ নাটকীয়। ২০০৫ সালে তারা বিয়ে করেন। কিন্তু বিয়েটা হলো কিভাবে?

বেশ মজার ঘটনা। একবার চেন্নাইতে বিখ্যাত তামিল অভিনেতা এস রামামূর্তির সঙ্গে স্টুডিওতে দেখা করেন মুরালিধরন। রামামূর্তি বিখ্যাত মালার হাসপাতালের প্রতিষ্ঠাতাও। মুরালি তাকে জানান, তার মা রামামূর্তির অনেক বড় ভক্ত। মায়ের সঙ্গে দেখাও করিয়ে দেন।

এই সময়েই মুরালির মা বলেন, ছেলের জন্য মেয়ে খুঁজছেন তিনি। ব্যস! ফুটে গেল বিয়ের ফুল! নিজের মেয়েকেই মুরালিধরনের হাতে তুলে দিলেন!

ওয়াসিম আকরাম-সেনেরিয়া থম্পসন

*

অস্ট্রেলিয়ান যোগাযোগ কর্মকর্তা সেনেরিয়া থম্পসনের সঙ্গে নিজের দ্বিতীয় বিয়ে করেন পাকিস্তানি ক্রিকেট কিংবদন্তি ওয়াসিম আকরাম। প্রথম স্ত্রী হুমার মৃত্যুর পর সেনেরিয়ার প্রেমে পড়েন ওয়াসিম। ২০১৩ সালে বিয়ে করেন তারা। আগের দুই সন্তান ছাড়াও, এই দম্পতির ঘরে একটি সন্তান রয়েছে।

আন্তর্জাতিক ক্রিকেট ক্যারিয়ারকে মেলে ধরতে গিয়ে কখনও কখনও জীবনকেই ‘আন্তর্জাতিক’ করতে হয়েছে ক্রিকেটারদের। তারই ধারাবাহিকতায় বিদেশ-বিভূঁইয়ে প্রেমে পড়া, বিয়ে করা। ক্রিকেটারদের সেই তালিকাটা বেশ দীর্ঘ। তার মধ্যে সবচেয়ে আলোচিত পাঁচটি বিয়ে নিয়ে এই আয়োজন : সানিয়া মির্জা-শোয়েব মালিক ভারত-পাকিস্তান দ্বৈরথ আটকিয়ে শান্তির মেলবন্ধন গড়েছিলেন পাকিস্তানের সাবেক অধিনায়ক শোয়েব মালিক ও ভারতীয় টেনিস তারকা সানিয়া মির্জা। দুজন চুটিয়ে প্রেম করার পর যখন বিয়ের পিঁড়িতে বসবেন, তখনও কম বিপাকে পড়তে হয়নি এই দম্পতিকে। ভারত-পাকিস্তান বলেই কিনা, বিয়ে ভাঙার জন্য কয়েকদফা হুমকি দেওয়া হয় তাদেরকে। শেষপর্যন্ত অবশ্য পরিণতি ঘটিয়েই ছেড়েছেন সানিয়া-শোয়েব। ২০১০ সালের ১২ এপ্রিলে বিয়ে করার পর এখন ‘আন্তর্জাতিক’ দম্পতিতে পরিণত হয়েছেন তারা। ইমরান খান-জেমিমা গোল্ডস্মিথ ব্রিটিশ সাংবাদিক জেমিমা গোল্ডস্মিথকে বিয়ে করে আলোচনায় আসেন পাকিস্তানের কিংবদন্তি সাবেক অধিনায়ক ইমরান খান। ইমরান খানকে বিয়ে করে ইসলাম ধর্মও গ্রহণ করেন তিনি। পাকিস্তানের সংস্কৃতির সঙ্গে মানিয়ে নেওয়ার জন্য অনেক চেষ্টা করেছেন। পোশাকও পরতেন পাকিস্তানের, শিখতেন উর্দু ভাষা। কিন্তু শেষপর্যন্ত বিয়ে টেকেনি। দুই সন্তান থাকাকালীন ২০০৪ সালের ২২ জুন তালাকনামায় সাক্ষর করেন দুজন। কারণ হিসেবে বলা হয়, ‘পাকিস্তানের পরিবেশে নিজেকে মানাতে পারছেন না জেমিমা।’ এই বিয়ের পর লিবিয়ান রেহেম খানকে বিয়ে করেন ইমরান। সেটা ২০১৫ সালে। এক বছরের মাথায় সেটাও টেকেনি। শন টেইট- মাসুম সিং ভারতেও নয়, অস্ট্রেলিয়াতেও নয়। প্যারিসে পরিচয় হয়েছিলো অস্ট্রেলিয়ান ফাস্ট বোলার শন টেইট ও ভারতীয় র‍্যাম্প মডেল মাসুম সিংয়ের। সেখান থেকেই শুরু। টানা চার বছর চুটিয়ে প্রেম করার পর ২০০৪ সালে বিয়ে করেন দুজনে। বিয়েটাও হয়েছিলো মনে রাখার মতো। অস্ট্রেলিয়ান টেইট পুরো পরিবারকে নিয়ে মুম্বাইতে আসেন বিয়ে করতে। টানা এক সপ্তাহ অনুষ্ঠানে বিয়ে হয় দুজনের। সেখানে জহির খান, যুবরাজ সিংয়ের মতো ভারতীয় ক্রিকেটাররাও উপস্থিত ছিলেন। মুত্তিয়া মুরালিধরন- মাধিমালার রামামূর্তি চেন্নাইয়ের মেয়ে মাধিমালারের সঙ্গে শ্রীলঙ্কান স্পিন কিংবদন্তি মুত্তিয়া মুরালিধরনের বিয়েটা বেশ নাটকীয়। ২০০৫ সালে তারা বিয়ে করেন। কিন্তু বিয়েটা হলো কিভাবে? বেশ মজার ঘটনা। একবার চেন্নাইতে বিখ্যাত তামিল অভিনেতা এস রামামূর্তির সঙ্গে স্টুডিওতে দেখা করেন মুরালিধরন। রামামূর্তি বিখ্যাত মালার হাসপাতালের প্রতিষ্ঠাতাও। মুরালি তাকে জানান, তার মা রামামূর্তির অনেক বড় ভক্ত। মায়ের সঙ্গে দেখাও করিয়ে দেন। এই সময়েই মুরালির মা বলেন, ছেলের জন্য মেয়ে খুঁজছেন তিনি। ব্যস! ফুটে গেল বিয়ের ফুল! নিজের মেয়েকেই মুরালিধরনের হাতে তুলে দিলেন! ওয়াসিম আকরাম-সেনেরিয়া থম্পসন অস্ট্রেলিয়ান যোগাযোগ কর্মকর্তা সেনেরিয়া থম্পসনের সঙ্গে নিজের দ্বিতীয় বিয়ে করেন পাকিস্তানি ক্রিকেট কিংবদন্তি ওয়াসিম আকরাম। প্রথম স্ত্রী হুমার মৃত্যুর পর সেনেরিয়ার প্রেমে পড়েন ওয়াসিম। ২০১৩ সালে বিয়ে করেন তারা। আগের দুই সন্তান ছাড়াও, এই দম্পতির ঘরে একটি সন্তান রয়েছে।

*

*

Top