Bhalukanews.com

ঐতিহাসিক হয়ে গেল ১১ নভেম্বরে ১১ নম্বর বাংলাধোলাই

ঢাকা অফিস: আবারও প্রমাণিত হলো বাংলাদেশ সমুন্নত মাথা নিয়ে বিশ্বের ক্রিকেট দরবারে দাড়ানো শক্তি রাখে। প্রতিপক্ষকে আরও একটি বাংলাধোলাইয়ের আনন্দে ভক্তদের মাতিয়েছেন মাশরাফি বিন মর্তুজা ও তার দল। এবার সফরকারী জিম্বাবুয়েকে এই ধোলাই দিয়েছেন তারা। বুধবার সিরিজের তৃতীয় ও শেষ ওয়ানডেতে জিম্বাবুয়েকে ৬১ রানে হারিয়েছে বাংলাদেশ। সঙ্গে ৩ ম্যাচের সিরিজ জিতে নিয়েছে ৩-০ ব্যবধানে।

গুটি গুটি পায়ে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে যে পথ চলা শুরু হয়েছিল; সেই চলার পথে বর্তমানে বাংলাদেশ অনেক বেশি শক্ত-সামর্থ্যবান। অবশ্য তা ওয়ানডে ক্রিকেটের বিচারে। কেননা, টেস্ট ক্রিকেটে এখনো যেন সেই কাঙ্ক্ষিত শক্তিটা সঞ্চয় করতে পারা যায়নি। তবে দুরন্ত পারফরম্যান্সে সাম্প্রতিক সময়ে, বিশেষ করে চলতি বছর একের পর এক সাফল্য বগলদাবা করে চলেছেন মাশরাফিরা। আর এরই ধারাবাহিকতায় সিরিজে প্রতিপক্ষকে আরও একবার বাংলাধোলাইয়ের স্বাদ দিয়েছেন তারা; যা বাংলাদেশের ১১ নম্বর বাংলাধোলাই দেওয়ার রেকর্ড। আর সেটাও এল নভেম্বরের ১১ তারিখে!

প্রথমবার কেনিয়ার বিপক্ষে হোয়াইটওয়াশ বা এই বাংলাধোলাই করার স্বাদ পেয়েছিল বাংলাদেশ; দেশের মাটিতে ২০০৫-০৬ মৌসুমে। এরপর ২০০৬ সালে সেই কেনিয়ার বিপক্ষে তাদের মাটিতেই দেখা মিলেছিল আরেকটি বাংলাধোলাইয়ের।

এরপর ২০০৬/০৭ মৌসুমে জিম্বাবুয়েকে ৫ ম্যাচের সিরিজে ৫-০ ব্যবধানে আউট করে স্বাগতিক বাংলাদেশ উপভোগ করেছিল তৃতীয় বাংলাধোলাই দেওয়ার আনন্দ।

সময়ের পরিক্রমায় এরপর একে একে স্কটল্যান্ড (১ বার), আয়ারল্যান্ড (১ বার), ওয়েস্ট ইন্ডিজ (১ বার), নিউজিল্যান্ড (২ বার) ও পাকিস্তানকে (১ বার) বাংলাধোলাই দিয়েছে টাইগাররা। আর বুধবার তৃতীয়বারের মতো জিম্বাবুয়েকে এই লজ্জায় রাঙিয়েছে তারা।

শক্তির বিচারে একটা সময় জিম্বাবুয়ে-বাংলাদেশ সমমানের দলই ছিল। বরং শুরুতে এগিয়ে ছিল জিম্বাবুয়েই। কিন্তু ধীরে ধীরে বিশ্ব ক্রিকেটে বাংলাদেশ নিজেকে টেনে নিয়েছে অনন্য উচ্চতায়। সেখানে জিম্বাবুয়ে যেন বাংলাদেশের সঙ্গে পেরে উঠার দল নয়। তাই ৩ ম্যাচের এই সিরিজ বাংলাদেশের জয় করে নেওয়াটা যেন একপ্রকার নিশ্চিতই ছিল। শুরুর আগেই। কেবল সংশয় ছিল বাংলাধোলাই নিয়ে; কেননা গৌরবময় অনিশ্চয়তার খেলা ক্রিকেটে জিম্বাবুয়ে একটা ম্যাচ জিতলেও জিততে পারে। কিন্তু দাপুটে পারফরম্যান্সে প্রথম দুই ম্যাচ জয়; এরপর বুধবার ৬১ রানের জয়ে সেই শঙ্কা দূর করে দিয়ে প্রতিপক্ষকে বাংলাধোলাই দেওয়ার আনন্দ পুরো দেশে ছড়িয়ে দিয়েছেন মাশরাফি ও তার অদম্য বাঘের দল।

*

*

Top