Bhalukanews.com

বন্যায় বাংলাদেশ-ভারত-নেপালে আক্রান্ত ৪ কোটি মানুষ

অনলাইন ডেস্ক:  চলতি বন্যায় দক্ষিণ এশিয়ার কয়েকটি দেশে ৪ কোটির বেশি মানুষ আক্রান্ত হয়েছে বলে জানিয়েছে আন্তর্জাতিক গণমাধ্যম। আর এর মধ্যে সবচেয়ে বেশি আক্তান্ত দেশ হচ্ছে বাংলাদেশ, ভারত ও নেপাল। দুর্গত এলাকায় বৃষ্টি বাড়লে পরিস্থিতির আরও অবনতি এবং দুর্গত মানুষের সংখ্যা বাড়ার আশঙ্কা করা হচ্ছে। জাতিসংঘের এক প্রতিবেদনে এই আশঙ্কা প্রকাশ করা হয়। এতে বলা হয়, বাংলাদেশ, ভারত ও নেপালে এই দুর্যোগে এ পর্যন্ত প্রায় এক হাজার মানুষের প্রাণহানি ঘটেছে। বাংলাদেশ সম্পর্কে জাতিসংঘের ওই প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, এবারের বন্যায় দেশটির প্রায় এক-তৃতীয়াংশ এলাকা ডুবে যায়। বন্যার্তদের সহায়তায় বাংলাদেশে স্থানীয়ভাবে প্রায় ২ হাজার চিকিৎসক দল কাজ করছে। সরকারের পাশাপাশি বিভিন্ন সংগঠন দুর্গত এলাকায় ত্রাণ কার্যক্রম চালাচ্ছে।
ভারতে বন্যাদুর্গত বিভিন্ন এলাকায় এখনো উদ্ধার অভিযান চলছে। দুর্গম এলাকাগুলো থেকে হেলিকপ্টারে করে দুর্গত ব্যক্তিদের উদ্ধার করা হচ্ছে। বন্যায় বাস্তুচ্যুত মানুষের জন্য ত্রাণশিবির স্থাপন করা হয়েছে। কিছু এলাকায় বন্যাদুর্গত ব্যক্তিদের পুনর্বাসনের কাজ চলছে। প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, বন্যাদুর্গত ৩টি দেশের সরকার, মানবিক সহায়তা সংস্থা, রেডক্রস-রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটি, বেসরকারি খাত ও সেনাবাহিনী দুর্গত ব্যক্তিদের সহায়তায় কাজ করে যাচ্ছে। তবে সড়ক, সেতু, রেলপথ ও বিমানবন্দরের ক্ষতির কারণে দুর্গত অনেক এলাকায় পৌঁছানো কঠিন হয়ে যাচ্ছে।
প্রতিবেদনে বলা হয়, জাতিসংঘের বিভিন্ন সংস্থা নেপালে সরকারের সঙ্গে যৌথভাবে দুর্গত ব্যক্তিদের সহায়তায় কাজ করছে। সেখানে বিশুদ্ধ পানি, খাদ্য, আশ্রয় ও চিকিৎসা সহায়তা দেওয়া হচ্ছে। এছাড়া সংস্থাটি বাংলাদেশ ও ভারতে সহায়তা দিচ্ছে। জাতিসংঘের ওই প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, বাংলাদেশ, ভারত ও নেপালে হাজার হাজার ঘরবাড়ি, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান, হাসপাতাল ও বিভিন্ন স্থাপনা ধ্বংস হয়েছে। জাতিসংঘের মানবিক বিভিন্ন বিষয় সমন্বয়কের কার্যালয় (ইউএনওসিএইচএ) বলছে, বৃষ্টি অব্যাহত থাকলে বন্যাদুর্গত এলাকার পরিস্থিতি আরও খারাপ হতে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে।

*

*

Top