Bhalukanews.com

চলে গেলেন নৃত্যশিল্পী রাহিজা খানম ‍ঝুনু

সকালে ঝুনুর মরদেহ হাসপাতাল থেকে পুরান ঢাকার কায়েতটুলিতে তার বাড়িতে নিয়ে যাওয়া হয়ে। জোহরের পর সেখানে তার জানাজা হবে।

বেলা ২টায় কফিন নিয়ে যাওয়া হবে নয়া পল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে। সেখানে আরেকবার জানাজা শেষে শিল্পকলা একাডেমীতে নিয়ে যাওয়া হবে এই নৃত্যশিল্পীর মরদেহ।

রাতে ল্যাবএইডের হিমঘরে রেখে সোমবার সকালে ঝুনুর কফিন নেওয়া হবে তার গ্রামের বাড়ি  ময়মনসিংহের ভালুকায়। সেখানে জানাজা শেষে স্বামীর কবরের পাশে তাকে দাফন করা হবে।

ঝুনু ছিলেন বিএনপির সাংস্কৃতিক সংগঠন জাসাসের সহসভাপতি। আর তার স্বামী আমানুল্লাহ চৌধুরী ভালুকা থেকে তিনবার সংসদ সদস্য নির্বাচিত হয়েছিলেন।

রাহিজা খানম ‍ঝুনু দুই ছেলে ও এক মেয়ে রেখে গেছেন। তার মেয়ে বেবী চৌধুরীও একজন নৃত্যশিল্পী।

ঝুনুর মৃত্যুতে শোক প্রকাশ করে আলাদা বিবৃতি দিয়েছেন বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া, মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা কাউন্সিলের সদস্য গাজী মাজহারুল আনোয়ার ও সাংস্কৃতিক বিষয়ক সম্পাদক আশরাফউদ্দিন আহমেদ উজ্জ্বল।

জাসাস সভাপতি অধ্যাপক মামুন আহমেদ এবং সাধারণ সম্পাদক চিত্র নায়ক হেলাল খান আলাদা শোক বার্তায় প্রয়াত এই শিল্পীর আত্মার মাগফেরাত কামনা করেছেন।

*

*

Top