Bhalukanews.com

বড়দিন উদযাপিত

উৎসবমুখর পরিবেশে খ্রিস্টান সম্প্রদায়ের সবচেয়ে বড় ধর্মীয় উৎসব বড়দিন উদযাপিত হয়েছে। এ উপলক্ষে সোমবার দেশের বিভিন্ন স্থানে বিশেষ প্রার্থনার আয়োজন করা হয়।খবর :….দুর্গাপুর (নেত্রকোনা): দুর্গাপুর উপজেলায় খ্রিস্টান সম্প্রদায়ের প্রায় ২২ হাজার লোকের বসবাস। বড়দিন উপলক্ষে ৬৮টি গির্জায় সমবেতভাবে দেশ ও জাতির কল্যাণে প্রার্থনা, আলোকপ্রজ্জলন, কেক কাটা, ধর্মীয় সংগীত ও নানা আয়োজনের মাধ্যমে এ দিবসটি পালন করা হয়। দিবসটি উদযাপন উপলক্ষে উপজেলা প্রশাসনের মাধ্যমে সরকারি অনুদান হিসেবে সর্বমোট ৩৪ মে. টন চাউল বরাদ্দ দেয়া হয়েছে। রাণীখং ধর্মপলস্নীর ফাদার পিলসন মানখিন জানান, এ উৎসব উপলক্ষে প্রতিটি গির্জায় দেশের মঙ্গল কামনায় বিশেষ প্রার্থনা ও শুভেচ্ছা বিনিময়সহ আত্মীয়স্বজনের মাঝে উপহার বিনিময় করা হয়। বগুড়া : শহরের খান্দারের খ্রিস্টান উপাসনালয় নতুন সাজে সাজানো হয়। সকালে বড়দিনের কেক কাটেন বগুড়ার ইয়ং মেনস খ্রিস্টান এসোসিয়েশনের পরিচালক ও খ্রিস্টম-লীর সভাপতি রবার্ট রবীন মারান্ডী। দিনাজপুর : দিনাজপুরে খ্রিস্টান মিশনগুলোর মধ্যে সবচেয়ে বড় মিশন শহরের কসবা এলাকার সেন্ট ফ্রান্সিস জেভিয়ার ক্যাথিড্রিল গির্জায় সকাল ৭টা থেকে শুরম্ন হয় বড়দিনের মূল উৎসব। এখানে সকাল ৯টায় শুরম্ন হয় প্রার্থনা এবং তা ঘণ্টাব্যাপী চলে। প্রার্থনা পরিচালনা করেন বিশপ সিলাস কুজুর। প্রার্থনা ও উৎসবে খ্রিস্টান ধর্মাবলম্বী শিশুসহ শত শত নারী-পুরম্নষ অংশ নেন। প্রার্থনা শেষে একে অপরের সঙ্গে কুশল ও শুভেচ্ছা বিনিময়সহ সকলে মেতে উঠেন। নাটোর : জেলার সবচেয়ে বড় ক্যাথলিক চার্চ বনপাড়াসহ জেলার ছোট বড় ১০টি চার্চে সকালে ঘণ্টাধ্বনি শুনে দলে দলে গির্জায় আসতে শুরম্ন করে খ্রিস্টান সম্প্রদায়ের নারী-পুরম্নষ, শিশু-বৃদ্ধরা। চার্চে স্তুতি ও কীর্তনের মাধ্যমে তারা যিশুকে স্মরণ করেন। বনপাড়া চার্চের প্রধান ধর্মীয় গুরম্ন হিউবার্ড বিকাশ রিভেরম্ন প্রার্থনা অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন। ভক্তিমূলক গানের মধ্য দিয়ে শুরম্ন হয় প্রার্থনা। প্রায় এক ঘণ্টাব্যাপী প্রার্থনা শেষে পরিবার-পরিজন নিয়ে তারা অংশ নেয় বড়দিনের উৎসবে নেচে গেয়ে আনন্দ উলস্নাস করে। পরে বাড়ি বাড়ি পিঠা উৎসব করা হয়। দিনব্যাপী এই উৎসবকে ঘিরে প্রশাসনের পক্ষ থেকে নেয়া হয়েছে বাড়তি নিরাপত্তা ব্যবস্থ্যা। এদিকে বাগাতিপাড়া স্যান্যাল পাড়ার মিশনে বড়দিনের উৎসব পালিত হয়। উৎসবে উপস্থিত ছিলেন স্থানীয় সংসদ সদস্য আবুল কালাম আজাদ। এ ছাড়াও জেলার জোনাইল ও নাটোর সদরের ব্যাপ্টিস্ট মিশনে পালন করা হচ্ছে বড়দিনের উৎসব। শেরপুর : শেরপুরের ঝিনাইগাতি উপজেলার মরিয়ম নগর খ্রিস্টান ধর্মপলস্নীতে সকালে প্রার্থনা এবং পরে কেক কেটে দিনটির শুভ সূচনা করেন মরিয়মনগর সাধু জর্জ ধর্মপলস্নীর পাল পুরোহিত ফাদার সুবল কুজুর সিএসসি। এ সময় সংক্ষিপ্ত আলোচনা সভা ও আনন্দ উৎসবের আয়োজন করা হয়। এতে অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জেলা প্রশাসক ড. মলিস্নক আনোয়ার হোসেন ও ঝিনাইগাতি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ফারহানা করিম প্রমুখ। জেলার সীমান্ত্মবর্তী নালিতাবাড়ি, ঝিনাইগাতি, শ্রীবর্দীসহ সদর উপজেলার ৭৪টি গির্জায় প্রার্থনা ও কেক কাটা হয়। গৌরীপুর পৌর শহরের পশ্চিম ভালুকায় উপজেলার প্রধান ব্যাপ্টিস্ট চার্চে কেক কেটে বড়দিনের শুভ সূচনা করেন ইউএনও মর্জিনা আক্তার। এ সময় উপস্থিত ছিলেন ব্যাংক কর্মকর্তা ফাহিম মাহমুদ, ময়মনসিংহ জেলার (পূর্ব) ব্যাপ্টিস্ট চার্চের সভাপতি হিউবার্ড চক্রবর্তী, গৌরীপুর ব্যাপ্টিস্ট চার্চের সভাপতি ডা. জজ বিশপ, গৌরীপুর প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক মশিউর রহমান কাউসার, গৌরীপুর থানার এস আই জামাল হোসেন, উপজেলা কৃষক লীগের সাধারণ সম্পাদক মনসুর আহাম্মেদ মিলন প্রমুখ। এদিকে এ উপজেলার বিভিন্ন গির্জা পরিদর্শন করে শুভেচ্ছা বিনিময় করেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সীমা রানী সরকার, গৌরীপুর থানার অফিসার ইনচার্জ দেলোয়ার আহাম্মেদ ও ইন্সপেক্টর (তদন্ত্ম) তারিকুজ্জামান।

ভালুকা (ময়মনসিংহ) : উপজেলার সিডস্টোর,নলুয়াকুড়িসহ বিভিন্ন স্থানে বড়দিন পালিত হয়েছে।

*

*

Top