Bhalukanews.com

অভিমানী_আনোয়ার হোসেন খান

একটা গল্প বলিমজা পেলে লাইক কমেন্টস করতে ভুলবেন নাপ্রবাসে থাকতেই খালাতো বোনের সাথে মন দেওয়া নেওয়ার এক পর্যায়ে আজকের পরির সাথে অনেকটা ঘটা করেই বিয়ে হয়পরি তখন এস এস সি দিয়েছেযাই হোক আসল ঘটনায় আসিপরি বরাবরই একটু আবেগী খুত খুতে স্বভাবের মেয়েতার যন্ত্রণাটা হলো এমন পাশের বাড়ির সুন্দরী কোন মেয়ের দিকে একটু তাকাইলেই কান্না -কাটি করে চোখের পানি নাকের পানি এক করে ফেলতোনানা শশুড় বাড়ীতে নতুন জামাই দাওয়াত করছে তাই সকাল থেকেই সাজ গোজ করে পরি সবার আগে তৈরি হয়ে আছেথারীতি আমাকেও তৈরি হয়ে বাস স্টেশনে আসতে হলো কিন্তু যাত্রীদের ভীড় দেখে মন নষ্ট হয়ে গেলোসম্ভবত ঈদের পরের দিন ছিল এই জন্যে যাত্রীদের ভীড় বেশিএকটা লোকাল বাস আসলো একদল নারী পুরুষের সাথে গাধাগাধি করে বাসে উঠলামপরিকে কোন রকমে একজন বৃদ্ধ লোকের আসনের পাশে বসাতে পারলেও আমার বসার কোন সুযোগ হলো নাবাসের ছাদের রেলিং ধরে একদল মেয়েদের মাঝে দাঁড়িয়ে আছিগাড়ীতে একজনের শরীরের সাথে অন্যজনের শরীর লেগে আছেআমি খেয়াল করিনি আমার হাতের নীচে একটা অল্প বয়সী মেয়ের হাত পরেছে সেও রেলিং ধরে আছে আমিও ধরে আছি উদ্দেশ্য হলো গাড়ি পেয়েছি এটাই বড় কথা যেভাবেই যাই না কেন গন্তব্যে পৌঁছাতেই হবেযাই হোক এই দৃশ্য যখন পরীর নজরে পরলো সে রাগে তখন হিতাহিত জ্ঞান হারিয়ে ফেললো ভাবছে কি করা যায়, কিভাবে আমাকে কষ্ট দেওয়া যায়তাই হাতের কাছে কোন যুবক ছেলে খুঁজে না পেয়ে বৃদ্ধলোকটির হাত চেপে ধরে বসে আছেআমার দৃষ্টি যখন পরির দিকে পড়লো তখন দেখি সে লোকটার হাত ধরে বসে আছে ,আমি চোখ ইসারায় বললাম কি করছো তখন সেও চোখ ইসারায় আমার হাতের দিকে ইঙ্গিত করলে আমি আমার ভুল বুঝতে পারিআজও ঘটনাটা মনে হলে একা একাই হাসি আর মনে মনে বলি “পাগলি– “একটা

 

(গল্পটিকে কেউ নিজের সাথে মিলাবেন না)

 

 

 

*

*

Top