Bhalukanews.com

নবীগঞ্জে কর্মরত সাংবাদিকদের সাথে সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় প্রধান শিক্ষক সমিতির প্রাথমিক শিক্ষার মানোন্নয় বিষয়ক মত বিনিময় সভা অনুষ্টিত

উত্তম কুমার পাল হিমেল,নবীগঞ্জ(হবিগঞ্জ)প্রতিনিধিঃ বাংলাদেশ সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় প্রধান শিক্ষক সমিতি নবীগঞ্জ উপজেলা শাখার নবগঠিত কমিটির নেতৃবৃন্দ নবীগঞ্জে বিভিন্ন জাতীয় ও স্থানীয় পত্রিকায় কর্মরত সাংবাদিকদের সাথে প্রাথমিক শিক্ষার মানোন্নয় বিষয়ে এক মতবিনিময় সভা গতকাল সোমবার বিকালে সদর আর্দশ প্রাথমিক বিদ্যালয়ে অনুষ্টিত হয়। নবীগঞ্জ উপজেলা শাখার নবগিঠিত প্রধান শিক্ষক সমিতির সভাপতি প্রধান শিক্ষক রাহেলা খানমের সভাপতিত্বে এবং সাধারন সম্পাদক প্রধান শিক্ষক বিপুল চন্দ্র দেবের পরিচালনায় এতে বক্তব্য রাখেন,সহ-সভাপতি মোঃ গোলাম আহমদ,সুজিত চন্দ্র দাশ,শিরিন ফাতেমা,কোহিনুর আক্তার,সিনিয়র যুগ্ম সম্পাদক সুবিনয় পুরকায়স্থ,শেখ রুমানা বেগম,যুগ্ম সম্পাদক মোঃ বদরুল আলম,সুকৃতি রানী দাশ,সাংগঠনিক সম্পাদক নোমান আহমদ,সহ- সাংগঠনিক সম্পাদক মোঃ এনামুল হক,তথ্য প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক মোঃ আবুল আজাদ,দপ্তর সম্পাদক সমীর হালদার,সহ-দপ্তর সম্পাদক বিজয় কৃষ্ণ দাশ,অর্থ সম্পাদক বিধু ভূষন দাশ,সহ-অর্থ সম্পাদক গৌতম দে রিপন,ক্রীড়া ও সাংস্কৃতিক সম্পাদক রানা চন্দ্র দাশ,সহ-মিডিয়া ও প্রচার সম্পাদক সজল চন্দ্র দাশ, সদস্য মহিতোষ দাশ তালুকদার প্রমূখ। এ সময় নেতৃবৃন্দ নবীগঞ্জে প্রাথমিক শিক্ষার মানোন্নয়নের ব্যাপারে কলম সৈনিক সাংবাদিকদের লেখনীর মাধ্যমে সহযোগীতা কামনা করে তাদের প্রাণের দাবী প্রধান শিক্ষকদের ১০ গ্রেডে উন্নীত করন,১ম,২য়,৩য় টাইমস্কেল প্রাপ্ত প্রদান শিক্ষকগনের করেস্পন্ডিং স্কেলে বেতন ফিক্সেশন,দ্রুত নিয়োগবিধি প্রনয়ন করা এবং শতভাগ বিভাগী পদোন্নতির বিধান রেখে সাংগঠনিক কাঠামোতে প্রধান শিক্ষকদেরকে উপজেলা শিক্ষা অফিসারের অধীনে ন্যাস্ত করা,সকল সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়কে ৮ম শ্রেণী পর্যন্ত উন্নীত করা,প্রাথমিক শিক্ষা সংক্রান্ত নীতি নির্ধারনে প্রধান শিক্ষকদের সাংগঠনিক প্রতিনিধিত্ব নিশ্চিত করাসহ ৫ দফা বাস্তবায়নে সরকারের নিকট জোর দাবী জানান।

দপ্তরী নিয়োগ বানিজ্যের পর এবার নবীগঞ্জের হাটবাজার ইজারা বানিজ্য সরকার বিপুল পরিমান রাজস্ব থেকে বঞ্চিত
নবীগঞ্জ প্রতিনিধি
নবীগঞ্জের ইতিহাসে কলংকজনক অধ্যায় উপজেলার বিভিন্ন প্রাইমারী স্কুলে দপ্তরী নিয়োগে ঘুষ বানিজ্যের রেশ কাটতে না কাটতে এবার হাট বাজার ইজারা নিয়ে ঘটেছে এক লংখা কান্ড। ফলে সরকার দলীয় কিছু নেতাদের এবং সরকারী কর্মকর্তাদের পকেট ভাড়ি হলেও বিপুল পরিমান রাজস্ব থেকে বঞ্চিত হয়েছেন সরকার। গত বুধবার ছিল হাট বাজার ইজারা প্রদানের ধায্য তারিখ। এর আগে বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে সিডিউল বিক্রি করা হয়েছে। কিন্তু সংশ্লিষ্ট কর্তাদের ম্যানেজ করে সরকার দলীয় কিছু লোক কাউকে টেন্ডারে অংশ নেয়া থেকে বিরত রেখে রিকুজিশন করে ভাগ বাঠোরা করে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। ফলে সরকার বিপুল পরিমান প্রকৃত রাজস্ব থেকে বঞ্চিত রয়েছে। এছাড়া বঞ্চিত হয়েছেন ইজারা নিতে আসা স্থানীয় লোকজন। ফলে তীব্র ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন বঞ্চিত সিডিউল ক্রেতারা। ঘটনাটি নিয়ে সরকার দলীয় নেতৃবৃন্দের মধ্যেও ক্ষোভ লক্ষ্য করা গেছে। বিষয়টি তদন্ত পুর্বক ব্যবস্থা গ্রহনের জন্য জেলা প্রশাসকের দৃষ্টি আর্কষন করেছেন।

*

*

Top