Bhalukanews.com

শ্রীদেবীর মৃত্যু রহস্য বেড়েই চলেছে

ভারতের জনপ্রিয় অভিনেত্রী শ্রীদেবীর মৃত্যুর পর কেটে গেছে অনেকগুলো দিন। যতই দিন যাচ্ছে ততই রহস্য বেড়েই চলেছে তার মৃত্যুকে ঘিরে। ফরেন্সিক বিশেষজ্ঞরা শ্রীদেবীর মৃত্যুর পরে জানিয়েছিলেন, তার শরীরে অ্যালকোহলের উপস্থিতি ছিল। এবার উঠে এল আরও চাঞ্চল্যকর তথ্য। পোস্টমর্টেম রিপোর্ট বলছে, বাথটাবের জলে ডুবে গিয়ে মৃত্যু হয়েছে শ্রীদেবীর। কিন্তু দিল্লি পুলিশের অবসরপ্রাপ্ত এসিপি এই মৃত্যু পরিকল্পিত বলে দাবি করেছেন।

অবসরপ্রাপ্ত এসিপি বেদ ভূষণ ভারতীয় এক সংবাদমাধ্যমের কাছে দাবি করেছেন, ‘‘বাথটাবে কাউকে জোর করে ডুবিয়ে রাখলে শ্বাস বন্ধ হয়ে তার মৃত্যু হয়। এতে কোনও খুনের কোনও প্রমাণ থাকে না। আর তাই সহজে একে দুর্ঘটনা হিসেবে দেখানো যায়। শ্রীদেবীর মৃত্যুও এভাবে দেখানো হয়েছে। আসলে এটি একটি পরিকল্পিত খুন।’’

বেদ ভূষণ আরও বলেন, ‘‘দুবাইয়ের আইনকে সম্মান জানিয়েই বলছি, আমরা শ্রীদেবীর মৃত্যুর মামলাটি নিয়ে সন্তুষ্ট নই। আমরা জানতে চাই, ঠিক কী ঘটেছিল। অনেক প্রশ্নের উত্তর এখনও বাকি থেকে গিয়েছে।’’

শুধু শ্রীদেবীর মৃত্যুকে পরিকল্পিত খুন বলে দাবি করাই নয়, যে হোটেলে শ্রীদেবীর মৃত্যু হয়েছিল, সেখানেও যান বেদ ভূষণ। শ্রীদেবী যে ঘরে ছিলেন, তার পাশের ঘরেই তিনি ছিলেন। কিন্তু শ্রীদেবীর মৃত্যু যে রুমে হয়েছিল সেই রুমে প্রবেশ করার অনুমতি তাকে দেওয়া হয়নি। পাশের ঘর থেকেই বিভিন্ন জিনিস পর্যবেক্ষণ করেন তিনি। এর পরে তার পরেই দেশে ফিরে এই দাবি করেন তিনি। এমনকী, তিনি এই মৃত্যুর তদন্ত চালিয়ে নিয়ে যাবেন বলেও জানিয়েছেন।

এর আগে চিত্র পরিচালক সুনীল সিংহও এর আগে শ্রীদেবীর মৃত্যু নিয়ে প্রশ্ন তুলেছিলেন। তিনি জানান, শ্রীদেবীর উচ্চতা ৫ ফুট ৭ ইঞ্চি, আর সেখানে বাথটাবের মাপ ৫ ফুট ১ ইঞ্চি। তা হলে কীভাবে বাথটাবে ডুবে তার মৃত্যু হতে পারে বলে প্রশ্ন করেন তিনি।

*

*

Top