Bhalukanews.com

যুদ্ধ পরিচালনা করতে গেলে কিছু নিরীহ মানুষ ক্ষতিগ্রস্ত হয় : নাসিম

স্বাস্থ্য ও পরিবারকল্যাণ মন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম বলেছেন, মাদকের ভয়াল থাবা বাংলাদেশকে ধ্বংস করে দিচ্ছিল। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশে মাদকের বিরুদ্ধে সারাদেশে যুদ্ধ চলছে। অভিযান পরিচালনার কারণে মাদক ব্যবসায়ী ও মাদক সেবনকারীরা নেশার আস্তানা ছেড়ে গর্তে পালিয়েছে। মাদকের বিরুদ্ধে ঘোষিত এ যুদ্ধে জয় কেউ ঠেকিয়ে রাখতে পারবে না।

তিনি বলেন, একটি যুদ্ধ পরিচালনা করতে গেলে কিছু নিরীহ মানুষ ক্ষতিগ্রস্ত হয়। রাস্তাঘাট করতে গেলে কিছু গাছপালা কাটা পড়ে, কারো কারো ঘরবাড়ি ভাঙা পড়ে। মাদকের বিরুদ্ধে অভিযানে হয়তোবা কোনো নিরীহ মানুষ ক্ষতিগ্রস্ত হতে পারে বা হয়েছে।

সোমবার রাজধানীর সোনারগাঁও হোটেলে স্বাস্থ্য ও পরিবারকল্যাণ মন্ত্রণালয়াধীন পরিবার পরিকল্পনা অধিদফতরের উদ্যোগে ‘সরকারি স্বাস্থ্যখাতের স্বাস্থ্যকেন্দ্র শক্তিশালী করার মাধ্যমে প্রাতিষ্ঠানিক ডেলিভারি বৃদ্ধি করা’ শীর্ষক এক অভিজ্ঞতা বিনিময় সভায় প্রধান অতিথির বক্তৃতায় তিনি এসব কথা বলেন।

পরিবার পরিকল্পনা অধিদফতরের মহাপরিচালক ড. কাজী মোস্তফা সারোয়ারের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ প্রতিমন্ত্রী জাহিদ মালিক। অনুষ্ঠানে বক্তব্য দেন সচিব মেডিকেল (এডুকেশন অ্যান্ড ফ্যামিলি ওয়েলফেয়ার ডিভিশন) ফায়েজ আহমেদ, স্বাস্থ্য অধিদফতরের মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. আবুল কালাম আজাদ, সেভ দি চিলড্রেনের ডেপুটি কান্ট্রি ডিরেক্টর ইশতিয়াক মান্নান, ইউএনএফপিএর চিফ হেলথ সাথিয়া নারায়ন দোরাসসোয়ামি, পরিচালক অফিস অব পপুলেশন, হেলথ নিউট্রেশন অ্যান্ড এডুসেশন ইউএসএআইডি/বাংলাদেশ প্রমুখ।

সংবাদকর্মীরা স্বাস্থ্যক্ষেত্রের সফলতা প্রচার করতে দেরী করেন উল্লেখ করে স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, মাতৃ ও শিশু মৃত্যুরোধসহ স্বাস্থ্য সেক্টরের বিভিন্ন ক্ষেত্রে বাংলাদেশের সফলতা সারা বিশ্বে প্রশংসনীয়। বাংলাদেশ বর্তমানে মাতৃদুগ্ধ পানের দিক থেকে সারা বিশ্বে তৃতীয়। অথচ এ সংবাদটি কোথাও দেখতে পায়নি।

শহরের চাইতে গ্রামের পরিবেশ ভালো হলেও এখনও চিকিৎসকরা গ্রামে থাকতে চান না মন্তব্য করে চিকিৎসকদের গ্রামে ধরে রাখতে সিভিল সার্জনদের নিয়মিত মনিটরিং ও সুপারভিশনের নির্দেশ দেন তিনি।

*

*

Top