Bhalukanews.com

কালান্তর

-ফরিদা আক্তার

শুনছ?
এই কয়েক বছর আগের কথা বলছি তোমায়

ষোড়শীকে ঘরে তুলে বানালে বধু-ঘরণী।
আবহমান নারীর স্বপ্ন জালে বিভোর আমি,
পুস্পায়িত বাসরে কত স্বপ্নের মধুময় রুপায়ন
আর আনন্দ মাতমে তুমিও তেমন।

নৈসর্গিক খেলায় মেতেছিলে আমার মাঝে
কালো কেশ, কাজল কালো চোখ, দীর্ঘাঙ্গী দেহ
এসবই তখন তোমার নতুন চোখে অমৃত সুধা,
বুনেছ পুস্পচারা আমার উঠোনে, আমি পুস্পিতা,
অবগুন্ঠন খুলে অবশেষে হয়েছি আজন্ম সমর্পিতা।
সেই স্বর্গসুধা পানকরে আজো আছি দুজনে
এক বৃক্ষের এক ছায়াতলে সুশীতল নিবিড়তায়।

আজ হতে বিশ বছর পরের কথা ভাবছি-

জৌলুস হারাবে এ দেহ, এই মসৃণতাও যাবে হারিয়ে
তখনও কি তুমি এমনি করে ভালবাসবে আমায়?
চোখ তুলে দেখে নিবে রুপহীনা নিরুত্তাপ দেহ আমার?

গভীর কালো দুটি চোখ ক্লান্তিময় অন্তলীন হয়ে যাবে
আমার গৃহমন্দিরের চাবি যাবেনাতো অন্য মসৃণ হাতে?
আমি পুনরাবর্তন নই, আর ফলবানও নই তখন।

যদি আমার বোধনে না জাগে রোমান্স তোমার অঙ্গে,
তখনও কি তুমি ব্যাকুল হবে আমার ভালবাসার তরে?
অন্তলীন চোখের গভীরে তাকিয়ে এভাবেই স্বপ্ন বুনবে?
হাতে হাত রেখে বলবে, ভালবাসি এখনো ভালবাসি!

আর যদি বিশ বছর পর আমি নাইবা থাকি এ ভূবনে

তোমার মনের টতরেখায় ভাসবে কি-
আমাদের সেই নৈসর্গিক লীলাখেলার যতো সব ছবি ?
আর যদি তুমি না থাকো তবে কি আমি হব অধীর
এভাবেই তোমার ভালবাসার উদ্গ্রীব অধিযাচনে?

জানিনা, এক একটা দিন যায় আর ভাবনা হয় উন্মুখ।
আশা নিরাশার দোলাচালে মনে জাগে অজানা সংশয়,
তবুও এর মাঝেই বাঁচি আমরা, ভালবাসায় বেঁধে বুক।

Image may contain: 1 person

*

*

Top