Bhalukanews.com

ভালুকায় শিশু ফারজানা হত্যার আসামী গ্রেফতার

 

ময়মনসিংহ (ভালুকা): ময়মনসিংহের ভালুকা উপজেলার পল্লীতে বাক প্রতিবন্ধী শিশু ফারজানা (৬) হত্যার প্রধান আসামী শফিকুলকে গ্রেফতার করেছে জেলা গোয়েন্দা পুলিশ।
সোমবার (১২ নভেম্বর) সকাল ১১ টায় ময়মনসিংহ জেলা পুলিশের সভা কক্ষে পুলিশ সুপার শাহ মো. আবিদ হোসেন সাংবাদিকদের এ কথা জানিয়েছেন। এর আগে পুলিশের কাছে ফারজানা হত্যার বিষয়ে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্ধি দিয়েছে শফিকুল।
পুলিশ সুপার জানান, গত শুক্রবার (৯ নভেম্বর) সকালে প্রতিবেশী মন্তুর বাড়িতে বিয়ের অনুষ্ঠানে যায় বাক প্রতিবন্ধী শিশু ফারজানা। বাড়িতে ফিরে না আসায় বাবা ফজলুল হক দুপুর ১২ টার দিকে বিয়ে বাড়িতে গিয়ে মেয়েকে খোঁজাখুঁজি করেন। পরে না পেয়ে একইদিন রাত ৯ টায় প্রতিবেশী আব্দুস সামাদের বাশঁঝাড়ে গলায় লুঙ্গি ও রশি পেচানো রক্তাক্ত অবস্থায় ফারাজানার মৃতদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। পরদিন শনিবার (১০ নভেম্বর) সকালে পুলিশ সুপার শাহ মো. আবিদ হোসেন ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন। পরে জেলা গোয়েন্দা পুলিশের ওসি শাহ মো. কামাল আকন্দ এবং ভালুকা মডেল থানার ওসি ফিরুজ তালুকদার বাদির প্রতিবেশী শফিকুলকে গ্রেফতার করে। এরপর জিঙ্গাসাবাদে ফারজানা হত্যার বিষয়ে বিস্তারিত স্বীকার করেন শফিকুল। তার দেয়া তথ্যমতে শফিকুলের বাড়ি থেকে ফারজানা হত্যকান্ডে ব্যবহৃত লুঙ্গির বাকি অংশ উদ্ধার করা হয়।
তিনি আরও জানান, ফারজানার বাবা ফজলুল হক নৈশপহরীর কাজ করেন। এর আগে প্রতিবেশী শফিকুল একটি মোবাইল ফোন চুরি দায়ে আটক হয়ে ছিল। ওই সময় থেকে ফজলুল হককে সন্দেহ করে আসছেন শফিকুল। এ ছাড়াও ফজলুর সঙ্গে তার স্বজনদের জমি নিয়ে বিরোধ রয়েছে। পুলিশ সব বিষয়ে খোঁজ নিচ্ছে। শফিকুলকে জিঙ্গাসাবাদে আরও চাঞ্চল্যকর তথ্য বের করবে বলেও পুলিশের এই কর্মকর্তা।
উল্লেখ্য, গত ৯ নভেম্বর রাতে ভালুকা উপজেলার পাঁচগাঁও গ্রামে বাশঁঝাড় থেকে ৬ বছর বয়সী বাক প্রতিবন্ধী শিশু ফারজানার মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। শিশুটির শরীরে একাধিক আঘাতের দাগ ছিল।

*

*

Top