Bhalukanews.com

শোক দিবস উপলক্ষে রাষ্ট্রপতি-প্রধানমন্ত্রীর বাণী

ঢাকা অফিস: জাতীর জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের শাহাদৎ বার্ষিকী ও জাতীয় শোকদিবস উপলক্ষ্যে পৃথক পৃথক বাণী দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এবং রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ। শুক্রবার রাতে দেয়া পৃথক এক বাণীতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা জাতির পিতাকে হারানোর শোককে শক্তিতে পরিণত করে তাঁর স্বপ্নকে বাস্তবায়ন করতে সকলের প্রতি আহ্বান জানান।

বাণীতে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ক্ষুধামুক্ত, দারিদ্র্যমুক্ত, শান্তিপূর্ণ, সমৃদ্ধ, অসাম্প্রদায়িক বাংলাদেশ প্রতিষ্ঠার এ সংগ্রামে আমাদের অবশ্যই জয়ী হতে হবে। সেদিনের সকল শহীদের রুহের মাগফেরাত কামনা করে তিনি বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের দূরদর্শী, সাহসী এবং ঐন্দ্রজালিক নেতৃত্বে বাঙালি জাতি পরাধীনতার শৃঙ্খল ভেঙে ছিনিয়ে এনেছিল স্বাধীনতার রক্তিম সূর্য। বাঙালি পেয়েছে স্বাধীন রাষ্ট্র, নিজস্ব পতাকা ও জাতীয় সংগীত।

পঁচাত্তরের ১৫ আগস্টের পর থেকেই এই জঘন্য হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে জড়িত স্বাধীনতাবিরোধী চক্র হত্যা, ক্যু ও ষড়যন্ত্রের রাজনীতি শুরু করে। ইনডেমনিটি অর্ডিনেন্স জারী করে বঙ্গবন্ধু হত্যার বিচারের পথ বন্ধ করে দেয় বলে বাণীতে তিনি উল্লেখ করেন।

জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে শুক্রবার দেয়া এক বাণীতে রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ বলেন, যতদনি এ দেশ ও জনগণ থাকবে ততদিন বঙ্গবন্ধুর নাম এ দেশের লাখো-কোটি বাঙ্গালীর অন্তরে চির অক্ষয় ও অমলিন হয়ে থাকবে।

রাষ্ট্রপতি তাঁর বাণীতে বলেন, গণতান্ত্রিক অগ্রযাত্রা ও বাঙালি জাতির ইতিহাসে ১৫ আগস্ট ১৯৭৫ এক বেদনাবিধুর ও কলঙ্কজনক অধ্যায়। এদিন জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু দেশের স্বাধীনতা বিরোধী ষড়যন্ত্রকারীদের প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষ মদদে ঘাতকচক্রের হাতে স্ত্রী, পুত্র, পুত্রবধূ এবং নিকট আত্মীয়সহ শাহাদাৎবরণ করেন। তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধুর চিন্তাচেতনায় সবসময় কাজ করত বাংলা, বাঙালি ও বাংলাদেশ। তিনি ছিলেন বাঙালি জাতির স্বপ্নদ্রষ্টা এবং বাঙালি জাতীয়তাবাদের প্রবক্তা।

রাষ্ট্রপতি জাতীয় শোক দিবসে শোকাহত চিত্তে ‘৭৫ এর ১৫ আগস্ট শহিদদের প্রতি গভীর শ্রদ্ধা নিবেদন করে তাদের রুহের মাগফিরাত কামনা করেন। একই সঙ্গে রাষ্ট্রপতি জাতীয় শোক দিবসে শোককে শক্তিতে পরিণত করে দেশ গঠনে আত্মনিয়োগ করার জন্য সকলের প্রতি আহবান জানান।

*

*

Top