Bhalukanews.com

আগাম সবজি চাষে ভালুকার কৃষকদের আগ্রহ বাড়ছে

বিশেষ প্রতিনিধি: ভালুকা উপজেলায় উৎপাদিত সবজি দেশের চাহিদা মিটিয়ে বিদেশেও রয়েছে এসব সবজির সুনাম । এখানকার কৃষকদের মধ্যে রয়েছে বুদ্ধি, কৌশল ও মেধার ভিন্নতা। তারা বছরের পর বছর সবজি উৎপাদনে অসামান্য অবদান রাখছেন। বর্তমানে তাদের উৎপাদিত শীতকালীন আগাম সবজি হাট বাজরে আসতে শুরু করেছে। আগাম সবজীতে লাভ বেশী থাকায় এখানকার কৃষকরা মৌসুমের আগেই সবজি চাষ শুরু করে। ভালুকার কচিনা বাজারে সবজি কিনতে আসা মোঃ আওয়াল জানান, ইতিমধ্যেই বাজারে বিভিন্ন প্রকারের শাক,বেগুন, মুলা,সিম,টমেটো, ফুলকপি, বাধাকপি,ডাটাসহ শীতকালীন আগাম সবজি আসতে শুরু করেছে। এই সবজির রয়েছে স্বাদের ভিন্নতা। পৌর বাজারে খুচরা সবজি বিক্রেতা জামাল উদ্দিন জানান, আগাম সবজির দাম বেশী হলেও বাজারে এর চাহিদা রয়েছে। অন্য সময় সবজী চাষ হলেও মৌসুমী সবজী চাষ ও উৎপাদন হয় বেশী। এ সময় চাষীদের উৎপাদিত শাক-সবজী এলাকার চাহিদা মিটিয়ে দেশের অন্যত্র রপ্তানি করা হয়।
ভালুকা উপজেলায় উৎপাদিত শীতকালীন সবজির মধ্যে রয়েছে সিম, মুলা, টমেটো, ফুলকপি, বাধাকপি, বেগুন, ঢেরস, করলা, লাউ, চিচিঙ্গা, লাল শাক, পালং শাক, ডাটা শাক, পাট শাক, বরবটি, কাফরুল ইত্যাদি। সরেজমিনে উপজেলার বিভিন্ন বাজার ঘুরে দেখা গেছে, কৃষকরা পাইকারের কাছ থেকে তাদের উৎপাদিত সবজি ভালো দামে বিক্রি করছে। উপজেলার সিডষ্টোর বাজারে আসা পাইকার হোসেন আলী জানান, এখানে শীতকালীন আগাম সবজির চাষ করা হয়। তাই তিনিসহ অনেক পাইকার সবজি ক্রয় করতে এখানে ছুটে আসেন। এ অঞ্চলের সবজির স্বাদ’ই আলাদা। তাই ক্রেতাদের কাছে এর আলাদা একটা চাহিদা রয়েছে। এসব সবজির দাম একটু বেশী হলেও স্বাদ ও গুনগতমান ভাল থাকায় ক্রেতারা খুশি।

#মো: আক্কাস আলী

*

*

Top