Bhalukanews.com

ভালুকায় শিশু নির্যাতন হাসপাতালে ভর্তি

স্টাফ রির্পোটার, ভালুকা নিউজ.কম:

ময়মনসিংহের ভালুকায় মোটরসাইকেল ফেলে দেয়ার অভিযোগে মোঃ আব্দুল আহাদ (৬) নামে প্রথম শ্রেণীর এক শিশু শিক্ষার্থীকে ব্যাপক নির্যাতণ চালানো হয়েছে। আহত শিশুকে স্থানীয় লোকজন উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্যকমপ্লেক্সে ভর্তি করেছেন। ঘটনাটি ঘটেছে বুধবার বিকেলে উপজেলার হবিরবাড়ির নুন্দিপাড়ায়। এ ঘটনায় ভালুকা মডেল থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে।

নির্যাতনের শিকার শিশুটির পরিবার ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, উপজেলার হবিরবাড়ি নুন্দিপাড়া চেঁচুয়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রথম শ্রেণীর ছাত্র গফরগাঁও উপজেলার গোলাবাড়ি গ্রামের জামাল উদ্দিনের শিশু ছেলে মোঃ আব্দুল আহাদ (৬) বুধবার বিকেলে স্কুল ছুটির পর প্রাইভেট পড়ে বাসায় ফিরছিল। এ সময় রাস্তার পাশে দাঁড় করানো একই ইউনিয়নের জীবনতলা গ্রামের আব্দুর রাজ্জাকের ছেলে আমান উল্যাহ খানের (৩৫) মোটরসাইকেলটি শিশু আহাদের হাত লেগে মাটিতে পড়ে গিয়ে সামান্য তিগ্রস্থ হয়। এ ঘটনায় মোটরসাইকেল মালিক আমান উল্যাহ শিশুটিকে দৌড়িয়ে ধরে চড়, থাপ্পর ও উপর্যুপরি লাথি মারতে থাকে। নির্যাতনের কারণে শিশু আহাদ মাটিতে পড়ে চিৎকারসহ ঘুংরাতে থাকলে সিডষ্টোর বাজার থেকে বাড়ি ফেরা একই এলাকার ফজর আলী শেখের ছেলে নুরুল ইসলাম মুন্সী পাষন্ড আমান উল্যাহর হাত থেকে শিশুটিকে উদ্ধার করে ভালুকা স্বাস্থ্যকমপ্লেক্সে ভর্তি করে।

নির্যাতনের শিকার আহাদের পিতা স্থানীয় লাবনী পিকনিক স্পটের কর্মচারী জামাল উদ্দিন জানান, ছেলেকে হাসপাতালে ভর্তির পর থেকে আমাকে বিভিন্ন মাধ্যমে বাড়াবাড়ি না করার জন্য হুমকী দেয়া হচ্ছে।

এ ব্যাপারে অভিযুক্ত আমান উল্যাহ খান নির্যাতনের বিষয়টি স্বীকার করে বলেন, শিশুটি তার মোটরসাইকেল মাটিতে ফেলে গ্লাসসহ বেশ কিছু যন্ত্রাংশ ভেঙে ফেলেছে। তাই তাকে ধরে চড়-থাপ্পর দেয়া হয়েছে।

এ ঘটনায় নির্যাতনের শিকার শিশুর পিতা জামাল উদ্দিন বাদি হয়ে অভিযুক্ত আমান উল্যাহ খানকে আসামী করে ভালুকা মডেল থানায় মামলা (১২) দায়ের করেছেন।

ভালুকা মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মামুনুর রশিদ জানান, শিশু আহাদ নির্যাতনের ঘটনায় মামলা হয়েছে এবং আসামী গ্রেফতারে অভিযান চলছে।

*

*

Top