Bhalukanews.com

ওয়াজ মাহফিলে ১৪৪ ধারা

2-2

স্টাফ রিপোর্টার : ময়মনসিংহের ফুলবাড়ীয়া উপজেলায় একই এলাকায় একই সময়ে দুই পক্ষের ধর্মসভা আহবানকে কেন্দ্র করে উত্তেজনার প্রেক্ষিতে ১৪৪ ধারা জারি করেছে প্রশাসন।পরিস্থিতি সামাল দিতে ঘটনাস্থলে বুধবার ১৪৪ ধারা হয় । ফুলবাড়ীয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা লীরা তরফদার বিষয়টি নিশ্চিত করেন । জানা যায়,  উপজেলার ৩নং কুশমাইল ইউনিয়নের আহম্মদপুর এলাকায় দেওয়ানবাগ ও মুজাহিদ এদুটি গ্রুপের উদ্যোগে ৮ ডিসেম্বর রাতে ধর্মসভা আহবান করা হয়। এনিয়ে গত ২ সপ্তাহ ধরে চলতে থাকে প্রচার প্রচারণা ।উভয় গ্রুপের অনুসারীদের মাঝে বিরাজ করতে থাকে টানটান উত্তেজনা । আশঙ্কার সৃষ্টি হয় রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষের।স্থানীয়রা জানান, পৌরসভা এলাকার লাহেড়ীপাড়া এলাকা ঘেঁষে আহম্মদপুর গ্রাম। এখানে দেওয়ানবাগ শরীফের খানকার অবস্থান ।এ খারকার পাশে আহম্মদপুর জামে মসজিদ। মসজিদটির অবস্থা জরাজীর্ণ হলেও খানকার ঘরটি দারুন চাকচিক্য। এখানে ওয়াজ মাহফিলের প্রস্তুতি হিসেবে তোরণ করা নির্মাণ করা হয়।খানকার পার্শ্বে আড়াই ফুট লম্বা লাঠি বানানো হয়। নির্মাতারা জানান, এখানে পতাকা টানানো হবে।এর অর্ধ কিলোমিটার কম দূরত্বে পশ্চিম-উত্তর প্রান্তে মুজাহিদ কমিটির আহ্বানে ওয়াজ মাহফিলের প্রস্তুতি নেয়া হয়। ফুলবাড়ীয়া-মুক্তাগাছা রাস্তার পূর্বপাশে তালতলা এলাকায় তোরণ অর্থাৎ গেইট নির্মাণ করা হয়। সেখানকার আয়োজকদের দাবী ধর্মসভাকে বাঁধাগ্রস্থ করছে দেওয়ানবাগ কর্মীরা।তালতলা বাজারে এনিয়ে চলতে থাকে আলোচনা-সামলোচনা। দু’পক্ষের লোকজন হয়ে উঠেন মারমুখি। দিন যত ঘনিয়ে আসে প্রতিপক্ষের পাল্টাপাল্টি অভিযোগ বাড়তে থাকে। এতে সাধারণদের মাঝে সৃষ্টি হয় আতঙ্ক।আশঙ্কা দেখা দেয় রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষের।দেওয়ানবাগ শরীফের সভাপতি আশেকে রাসূল এ.আর.এম নুরুল ইসলাম বলেন, আমরা ২০বছর ধরে এখানে ওয়াজ মাহফিল করে আসছি। আমাদের প্রতিপক্ষ মুজাহিদ কমিটির লোকজন ইসলামের বাণী প্রচারের জন্য বিপরীতে অবস্থান নিয়ে সমাজে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করার পায়তারা করছে।মুজাহিদ কমিটির আয়োজকরা জানান, ইসলাম কখনো বিশৃঙ্খলা সৃষ্টিতে সমর্থন করে না। আমরা প্রকৃতপক্ষেই শান্তির বাণী শোনাতে চাই।ফুলবাড়ীয়ায় উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা লীরা তরফদার জানান, আইনশৃঙ্খলা রক্ষায় সেখানে ১৪৪ ধারা জারি করা হয়েছে ।

 

*

*

Top