Bhalukanews.com

গোলাপজলের নানান গুণ

ত্বকের যত্নে গোলাপজল খুবই উপকারী। স্পর্শকাতর ত্বকসহ সব ধরনের ত্বকের জন্য গোলাপজল উপযোগী। আদিকাল থেকে গোলাপজল রুপচর্চার উপকরণ হিসেবে ব্যবহৃত হয়ে আসছে। বর্তমানে রুপচর্চার বিভিন্ন প্রোডাক্টে উপাদান হিসেবে গোলাপজল থাকে। এতে অ্যান্টিসেপটিক উপাদান রয়েছে, উজ্জ্বল ত্বকের জন্য এটি ব্যবহার করা হয়।

ত্বকের যত্ন নিতে বিভিন্নভাবে গোলাপজল ব্যবহার করা যেতে পারে :স্কিন টোনার হিসেবে : শীতল গোলাপজল সাধারণত সব ধরনের ত্বকের জন্য স্কিন টোনার হিসেবে ব্যবহার করা যায়। গোলাপজল মুখে এমনভাবে লাগান যাতে ত্বকের লোমকুপলোতে মিশে যায়। এতে ত্বক ফ্রেশ লাগবে এবং গোলাপের সুগন্ধি আপনার মন ফুরফুরে হবে।চোখের ফোলা কমাতে :  অনেক সময় পর্যাপ্ত ঘুমের অভাবে চোখ ক্লান্ত হয় এবং ফুলে যায়। গোলাপজলে নিমিষেই এর সমাধান করা যায়। একটি গোলাপজলের বোতল নিন। এরপর কিছুক্ষণের জন্য বোতলটি ফ্রিজে রাখুন। গোলাপজলে সামান্য তুলা ভিজিয়ে নিয়ে আস্তে করে চোখের পাতায় লাগান। যতক্ষণ পর্যন্ত আপনি চোখের পাতায় শীতল অনুভব করবেন ততক্ষণ পর্যন্ত তুলার প্যাডটি ধরে রাখুন। এটি চোখের ফোলা কমাতে সাহায্য করবে এবং চোখের ক্লান্তি দূর করবে।মেকআপ রিমুভার হিসেবে : সহজেই গোলাপজল দিয়ে মুখের মেকআপ তোলা যায়। ২ চা চামচ গোলাপ জলের সঙ্গে ১ চা চামচ নারিকেল তেল বা বাদাম তেল মিশিয়ে মেকআপ রিমুভার তৈরি করে নিতে পারেন। এটি দিয়ে আপনি সহজেই যত্ন সহকারে মেকআপ তুলে ফেলতে পারেন। মিশ্রণটিতে তুলা ভিজিয়ে নিন। এরপর ভেজা তুলা দিয়ে মেকআপের স্তর মুছে ফেলুন। গোলাপ জল এবং নারিকেল তেল দুটোই ত্বকের জন্য ভালো। এটি দিয়ে চোখের মেকআপও তুলে ফেলতে পারেন।ফেস মিস্ট হিসেবে ব্যবহার : গোলাপজল ত্বকে ফেস মিস্ট হিসেবে ব্যবহার করা যায়। ত্বকে গোলাপ জল স্প্রে করলে দীর্ঘদিন ধরে সজীব থাকে। ত্বকে মেকআপ সেটিংয়ের জন্যও এটি ব্যবহার করা যায়।ত্বকে জলয়োজনের জন্য : গোলাপজল ত্বককে স্বাস্থ্যোজ্জ্বল করে তোলে। এটি ত্বকের জলয়োজনে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখে। ময়েশ্চারাইজিং ক্রিমের সঙ্গে সামান্য পানি মিশিয়ে ব্যবহার করুন। এতে ত্বক রিফ্রেশ থাকবে। ত্বক ময়েশ্চারাইজার থেকে জল শোষণ করে নেবে।

তথ্যসূত্র : টাইমস অব ইন্ডিয়া।

*

*

Top