Bhalukanews.com

ভ্যালেন্টাইন ডেতে দেখুন ২০ রোমান্টিক চলচ্চিত্র

ভালুকানিউজ ডটকম; ডেস্ক: আজ ভ্যালেন্টাইন ডে। আপনি হয়তো ভাবছেন ভালোবাসার মানুষটার জন্য কী করা যায়। রোমান্টিক কোনো ডিনার অথবা ভাবছেন দূরে কোথাও বেড়াতে যাবেন। আপনি চাইলে সঙ্গীকে নিয়ে দেখতে পারেন রোমান্টিক কোনো চলচ্চিত্রও।

নেটফ্লিক্স চলচ্চিত্র দেখার খুবই ভালো একটা ওয়েবসাইট। চাইলে নেটফ্লিক্সে দেখতে ‍পারেন এই ২০ চলচ্চিত্র।

১. দ্য প্রিন্সেস ব্রাইড : রব রেইনার পরিচালিত সত্যিকার ভালোবাসার এই ক্লাসিক গল্প কখনই পুরানো হবে না। ক্যারি এলউইস এবং রবিন রাইটের অভিনয় দেখে আপনি চোখ ফেরাতে পারবেন না।

২. মুনরাইজ কিংডম : ১৯৬০ সালে নিউ ইংল্যান্ডের নতুন দ্বীপ খুঁজতে যাওয়া কম বয়সী এক ছেলে ও এক মেয়ের অ্যাডভেঞ্চারের গল্প। যেখানে রোমান্টিকতাও আছে। তাদের খুঁজতে সার্চ পার্টিও যায়। এক চলচ্চিত্রে রোমান্টিকতা ও অ্যাডভেঞ্চার দুইয়েরই স্বাদ পাচ্ছেন।

৩. আন্ডার দ্য টুসকান সান : ডায়ানা লেন একজন ডিভোর্সি নারীর চরিত্রে অভিনয় করেছেন। টুসকানিতে তার বাড়ি কেনার স্বপ্ন এবং কীভাবে সে তার ভালোবাসার মানুষকে খুঁজে পায় সে গল্প এখানে তুলে ধরা হয়েছে। একইসঙ্গে ইতালির মনোরম প্রাকৃতিক দৃশ্যও উপভোগ করতে পারবেন আপনি।

৪. ব্রিজেট জোন্স ডায়েরি : আন্ডার দ্য টুসকান সানের ডায়ানার চরিত্রের সঙ্গে এই চলচ্চিত্রের নারী চরিত্রের মিল আছে। রেনি জেলউইগার নিজেকে উন্নত করার জন্য অনেক বেশি আত্মপ্রত্যয়ী হিসেবে দেখানো হয়েছে এখানে।

৫. গ্রসি পয়েন্টে ব্ল্যাঙ্ক : মার্টিন ব্ল্যাঙ্ক একজন গুপ্তঘাতক। একদিন গ্রসি পয়েন্টে যখন তার কাজ পড়ে তখন দেখা হয় ১০ বছর ক্রাশের সঙ্গে। উপভোগ করার মতোই চলচ্চিত্র এটি।

৬. হাও টু লুজ এ গাই ইন টেন ডেজ : ম্যাথু ম্যককনহে ও কেট হাডসন জুটির চমৎকার একটি চলচ্চিত্র এটি। দু’জনের কেমিস্ট্রিই আপনাকে চলচ্চিত্রের দিকে টেনে রাখবে।

৭. ক্লুলেস : অ্যালিসিয়া সিলভারস্টোন তার হাই স্কুলের অনেক জনপ্রিয় এক ছাত্রী। সে তার সৎ ভাইয়ের প্রেমে পড়ে। সম্পূর্ণ ভিন্ন ভালোবাসার এ ছবি আপনার ভ্যালেন্টাইনের দিন সুন্দর করে তুলবে।

৮. সেরেন্ডিপিটি : নিজের সঙ্গীর জন্য গ্লাভস কেনার সময় নায়িকার দেখা হয় নায়কের সঙ্গে। তখনই তারা নিজেদের প্রতি অন্যরকম এক আকর্ষণ অনুভব করছিল। কিন্তু দুইজনেই অন্য একজনের সঙ্গে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ। তাই তারা সিদ্ধান্ত নেয় আলাদা হবার। কীভাবে এই জুটি ফের এক হয় সে গল্পই এখানে পাবেন।

৯. লাভ অ্যাকচুয়ালি : তারকাবহুল এ চলচ্চিত্রে লন্ডনের রাস্তায় ক্রিসমাসের সময় বিভিন্ন প্রেমকাহিনি উঠে এসেছে। এ চলচ্চিত্র দেখতে ‍হলে অবশ্যই সঙ্গে টিস্যু নিয়ে বসতে হবে।

১০. ব্লু ইজ দ্য ওয়ার্মেস্ট কালার : ২০১৩ সালে কান চলচ্চিত্রে পাম ডি’অর জয়ী এ চলচ্চিত্রের কাহিনি মূলত অ্যাডেলেকে নিয়ে। অ্যাডেলে নীল রঙা চুলের এমার প্রেমে পড়ে।

১১. কান্ট বায় মি লাভ : প্যাট্রিক ডাম্পসে তার হাই স্কুলের সবচেয়ে জনপ্রিয় মেয়েকে ১০০০ ডলার দেয় তার প্রেমিকা হওয়ার জন্য। সত্যিই কি সে কিনতে পারে মেয়েটিকে?

১২. শেক্সপিয়ার ইন লাভ : শেক্সপিয়ারের জীবনের ছোট একটি অংশ নিয়ে বানানো এই চলচ্চিত্রের কাহিনি। কমবয়সী শেক্সপিয়ার কীভাবে এক নারীর প্রেমে পড়ে এবং নতুন এক নাটক রচনা করে সেটি এখানে দেখানো যায়।

১৩. সিং স্ট্রিট : কনর তার ভালোবাসার মানুষকে কাছে আনেতে ব্যান্ডের দল খোলে। সত্যিই কি সে তার স্বপ্নের মানুষকে পায়? জানতে হলে দেখতে হবে এই চলচ্চিত্রটি।

১৪. অ্যামেলি : অ্যামেলি ফ্রান্সের সহজ সরল এক মেয়ে যে প্যারিসে সবার জন্য মহৎ কাজ করে নিজের ভালোবাসাকে খুঁজে পাওয়ার জন্য।

১৫. বিগিনারস : অলিভারের বাবা ক্যান্সারে আক্রান্ত এবং গে এই সত্য সে সবাইকে জানিয়ে দেয়। যখন এই সত্যের মাঝে সে বসবাস করা শুরু করে তখন যে নারীর সঙ্গে মাত্র পরিচয় হলো তার প্রতি সে আকর্ষণ অনুভব করে।

১৬. দ্য ডিউক বারগেন্ডি : প্যাট্রিক স্ট্রিকল্যান্ডের এটি সম্পূর্ণ ভিন্নধর্মী একটি চলচ্চিত্র। এভেলিন ও সিনথিয়ার বিশেষ সম্পর্ক নিয়ে নির্মিত এ চলচ্চিত্র।

১৭. ইওরস সিস্টারস সিস্টার : আইরিস তার বন্ধু জ্যাককে তার বাসায় আমন্ত্রণ জানায়। জ্যাকের ভাই কিছুদিন আগে মারা যায়। অন্যদিকে আইরিসের বোন হ্যানার সম্প্রতি সম্পর্কের ভাঙন হয়। এক রাতে হ্যান ও জ্যাক কাছাকাছি আসে। আইরিসও জ্যাককে পছন্দ করে। এমনি ত্রিমুখী প্রেমের কাহিনি এটি।

১৮. ওয়াই তু মামা ট্যাম্বিয়ান : অস্কারে মনোনয়নপ্রাপ্ত এই চলচ্চিত্র দুইজন কিশোরকে নিয়ে যারা তাদের থেকে বয়সী নারীকে নিয়ে ঘুরতে বের হয়।

১৯. মেডিসিন ফর মেলানকলি : দুইজন নারী ও পুরুষ এক রাত একসঙ্গে থাকার পরদিন নিজেদের আবিষ্কার করার কাহিনি এটি।

২০. আপস্ট্রিম কালার : দু’জন নারী-পুরুষ একে অপরের সঙ্গে জড়িয়ে পড়ে কোনো এক অজানা কারণে। এক সময় তারা আবিষ্কার করেন তাদের এ সম্পর্ক তাদের জীবনের কষ্টকে ধীরে ধীরে দূর করে দিচ্ছে।

*

*

Top