Bhalukanews.com

উপ-সম্পাদকীয় articles

এসো হে বৈশাখ এসো এসো… :: সফিউল্লাহ আনসারী

এসো হে বৈশাখ এসো এসো… :: সফিউল্লাহ আনসারী

“মুছে যাক গ্লানি ঘুছে যাক জরা অগ্নি ¯œানে সূচী হোক ধরা । রসের আবেশ রাশি শুষ্ক করে দাও আসি আনো আনো আনো তব প্রলয়ের শাঁখ মায়ার কুজ্ঝটিজাল যাক দূরে যাক। এসো হে বৈশাখ এসো এসো…” কবিগুরুর এই লাইনগুলো যেনো বৈশাখকে করেছে মহিমান্বিত। এই গান ছাড়া যেনো বৈশাখের আয়োজনই অপূর্ণ। পহেলা বৈশাখ আমাদের সংস্কৃতির আনুষ্ঠানিকতায় অন্যতম

আন্তর্জাতিক নারী দিবস

“নারী-পুরুষের সমতায় উন্নয়নের যাত্রা, বদলে যাবে বিশ্ব, কর্মে নতুন মাত্রা” -সফিউল্লাহ আনসারী- “পৃথীবিতে যা কিছু চির কল্যাণকর,অর্ধেক তার করিয়াছে নারী অর্ধেক তার নর’’ কবি নজরুলের অমর কবিতা,নারীকে স্বীকৃতি দিয়েছে সমঅধিকারের। ৮ মার্চ আন্তর্জাতিক নারী দিবস (ওহঃবৎহধঃরড়হধষ ডড়সবহ’ং উধু (ওডউ)। বিশ্বের অন্যান্য দেশের মতো বাংলাদেশেও গুরত্বের সাথে পালিত হবে এ দিবসটি। অবশ্য এর আগে ‘আন্তর্জাতিক কর্মজীবী

বিশ্ব ভালোবাসা দিবসে সুন্দরবনকে ভালোবাসুন

-সফিউল্লাহ আনসারী-  “বিশ্ব ভালোবাসা দিবসে সুন্দরবনকে ভালবাসুন”। ১৪ ফেব্রুয়ারি সুন্দরবন দিবস। বিশ্ব ভালোবাসা দিবসও এ দিন। সুন্দরবনকে ভালোবাসতে ভালোবাসা দিবসে শপথ নিতে হবে । দেশের বনাঞ্চল ও পরিবেশ প্রকৃতিকে বাঁচিয়ে, আমাদের আগামী প্রজন্মকে সুস্থ পরিবেশ সুন্দর দেশ উপহার দিতে এবং সুন্দরবনকে ঘিরে পযর্টন এবং মৎস্য-বনজ স¤পদের মাধ্যমে বছরে হাজার কোটি টাকার রাজস্ব আয়কে অব্যাহত রাখতে

নতুন বছরের প্রত্যাশা ও প্রাপ্তি

সফিউল্লাহ আনসারী  নতুন স্বপ্ন আর নতুন প্রত্যাশায় শুরু হলো ইংরেজী নতুন বছরের নতুন দিন। আমরা নতুন স্বপ্নে শুরু করেছি নতুন বছর ২০১৭ ,পুরাতন বছর ২০১৬ কে বিদায় দিয়ে। নানা উৎসব-আয়োজনের মধ্য দিয়ে সারা বিশ্বসহ বাংলাদেশের মানুষ স্বাগত জানাতে ব্যাস্ত খ্রিস্টীয় নতুন বছর ২০১৭-কে। নবচেতনায়, নতুন উন্মাদনায় ইংরেজী নববর্ষে বিশ্ববাসী মেতে উঠছে নতুন বছরের নতুন প্রত্যাশায়।

বছর শেষের ভাবনা; বছর শুরুর স্বপ্ন…

সফিউল্লাহ আনসারী সব কিছুর শুরু আছে,শেষও হয়ে যায়…! প্রকৃতির নিয়মে সব কিছুর শুরুর সাথেই রয়েছে শেষ হয়ে যাওয়া।তবে কিছু কিছু শেষ নতুনের বার্তা নিয়ে আসে।নতুন বছর ঠিক তেমনি। আমাদের জীবন সংসারের অন্যান্য বিষয়ের মতোই আমাদের মাঝে নতুন বছরের আগমন ঘটে স্বপ্ন আর প্রত্যাশায়। শুরুটা স্বপ্ন আর প্রত্যাশার হলেও শেষটা অনেক সময় পাওয়া-না পাওয়ার হতাসায় মোড়ানো

মুক্তিযুদ্ধের বিজয়কে সার্থক করে তুলতে হবে

নুরুল ইসলাম নাহিদ ========= ডিসেম্বর মাস আমাদের জাতির বিজয়ের মাস হিসেবে প্রতিষ্ঠিত হয়ে গেছে। ১৯৭১ সালের ১৬ ডিসেম্বর পাকিস্তানি শাসকগোষ্ঠী, সামরিক বাহিনী এবং তাদের সহযোগীরা পরাজয় স্বীকার করে আত্মসমর্পণ করতে বাধ্য হয়। বিশ্বের বুকে স্বাধীন সার্বভৌম বাংলাদেশের অভ্যুদয় ঘটে। বাঙালি জাতির হাজার বছরের ইতিহাসের সবচেয়ে গৌরবোজ্জ্বল অধ্যায় হচ্ছে আমাদের মুক্তিযুদ্ধ-স্বাধীনতা-বাংলাদেশের অভ্যুদয়। এই গৌরবোজ্জ্বল অধ্যায়ের মহানায়ক

বিশ্ব মানবাধীকার দিবস ও রোহিঙ্গা নিধন

  আজ বিপন্ন মানবতা,নির্বাসিত মানবতাবোধ। ক্ষমতার মোহ আর ধর্মীয় কুপমন্ডুতা মানুষে-মাানুষে বিভেদ সৃষ্টি করছে। মানুষের মৌলিক অধীকার মানবাধীকার (Human Rights) । যুগ যুগ ধরে মানুষ নিজের অধীকার আদায়ের জন্য আন্দোলন-সংগ্রাম করছে। মানবাধীকারের বিষয়টি সকল ধর্ম,বর্ণ,জাতী নির্বিশেষে সব পর্যায়ের মানুষের জন্য একটি অপরিহার্য- গুরুত্বপুর্ণ ও আলোচিত বিষয় হিসেবে পরিগনিত হলেও পৃথিবী জুড়ে আজ নিপিড়িত,নির্যাতিত-বিপন্ন মানবতা। সাম্প্রতিক

ভালো শিক্ষক ও আদর্শ স্কুল

সফিউল্লাহ আনসারী শিক্ষা,শিক্ষক এবং শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, শব্দগুলোর সম্পর্ক নিবির।একটি ছাড়া আরেকটি অচল।শিক্ষকের অর্বতমানে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের কার্যক্রম চলেনা।আবার উপযুক্ত শিক্ষার পরিবেশহীন স্কুলে ভালো শিক্ষক তার মেধা ও মননের বিকাশ ঘটাতে পারেনা। সময়ের সাথে পাল্লা দিয়ে আমাদের শিক্ষা ব্যাবস্থায়ে এসেছে পরিবর্তন,লেগেছে যুগের হাওয়া।কিন্তু প্রশ্ন হচ্ছে সেই আধুনিক শিক্ষা অার পরিবর্তনটা কি শুধু অসুস্থ প্রতিযোগীতা আর ব্যাবসায়ীক মনোভাবকেই

ভালো শিক্ষক ও আদর্শ স্কুল

-:সফিউল্লাহ আনসারী:- শিক্ষা,শিক্ষক এবং শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, শব্দগুলোর সম্পর্ক নিবির।একটি ছাড়া আরেকটি অচল।শিক্ষকের অর্বতমানে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের কার্যক্রম চলেনা।আবার উপযুক্ত শিক্ষার পরিবেশহীন স্কুলে ভালো শিক্ষক তার মেধা ও মননের বিকাশ ঘটাতে পারেনা। সময়ের সাথে পাল্লা দিয়ে আমাদের শিক্ষা ব্যাবস্থায়ে এসেছে পরিবর্তন,লেগেছে যুগের হাওয়া।কিন্তু প্রশ্ন হচ্ছে সেই আধুনিক শিক্ষা অার পরিবর্তনটা কি শুধু অসুস্থ প্রতিযোগীতা আর ব্যাবসায়ীক মনোভাবকেই

১০ মহররমের গুরুত্ব ও তাৎপর্য

আরবী হিজরী বর্ষের প্রথম মাস হলো মহররম। এই মাসের গুরুত্ব ও তাৎপর্য অপরিসীম।১০মহররম বিশ্বের মুসলমানদের ইতিহাসে একটি বিয়োগান্ত ঘটনার দিন।যা থেকে শিক্ষা গ্রহনের সুযোগ রয়েছে,রয়েছে বর্তমান কঠিন অবস্থা থেকে উত্তরণের ঐতিহাসিক শিক্ষাও। হিজরী ৬১ সনের ১০ মহররম ঐতিহাসিক কারবালার প্রান্তরে ইয়াজিদের বাহিনী কর্তৃক হযরত ইমাম হোসাইন (রাঃ)কে যে নির্মম ভাবে শহীদ করা হয়,সেই হৃদয় বিদারক