Bhalukanews.com

উপ-সম্পাদকীয় articles

দিন দিন কমছে ফসলি জমি । সফিউল্লাহ আনসারী

দিন দিন কমছে ফসলি জমি । সফিউল্লাহ আনসারী

  সময়ের সাথে পাল্লা দিয়ে প্রতিদিন আমাদের চারপাশে কমছে ফসলি জমি।আর এই  ফসলি জমি কমে যাওয়ায় হুমকির মুখে খাদ্য নিরাপত্তা।শুনতে অবাক লাগলেও সত্যিটা এমনই।সারা দেশে অপরিকল্পিত নগরায়ন,শিল্পায়ন,বাড়ী-ঘর নির্মাণসহ একাধীক কারনে বর্তমানে ফসলি জমি উদ্বেগজনক হারে কমে আসছে খুব দ্রুতলয়ে।মৎস চাষের নামে এবং ইট ভাটার কারনে অনেক ফসলি জমি বন্ধি হয়ে যাচ্ছে।সঠিক পরিকল্পনা থাকলে পতিত জমিতে

স্বাধীনতার ইতিহাস ও প্রজন্ম ভাবনা

আবুল বাশার শেখ : আমাদের প্রিয় জন্মভূমি বাংলাদেশ। এদেশ আর এদেশের স্বাধীনতা আমরা এমনি এমনি পাইনি। স্বাধীনতার স্বাদ আহরণ করতে গিয়ে ১৯৭১ সালের ১৬ ডিসেম্বর পর্যন্ত ৩০ লাখ শহীদের রক্ত ২ লাখ মা বোনের ইজ্জত দিতে হয়েছে। যার বিনিময়ে পৃথিবীর মানচিত্রে স্থান করে রক্তস্নাত লাল-সবুজ পতাকার স্বাধীন সার্বভৌম বাংলাদেশ। অশিক্ষা, দুর্নীতি, ধর্মভিত্তিক রাজনীতি, জঙ্গিবাদসহ নানা

হিজড়া সম্প্রদায়ের অকথ্য অত্যাচার সম্পর্কে প্রশাসন নিরব কেন ?

মাহমুদুল বাসার হিজড়া সম্প্রদায়ের জুলুম, চাঁদাবাজী অকথ্য অত্যাচার ১৯৭১ সালের পাকিস্তানি খান সেনাদের পর্যায়ে পৌঁছেছে। এ ব্যাপারে পুলিশ প্রশাসনের নিরবতা হিজড়াদের অত্যাচারকে আরো বাড়িয়ে তুলেছে। সারা বাংলাদে=শে হিজড়া সম্প্রদায় আছে এবং সারা দেশেই ওরা দলবদ্ধ হয়ে চাঁদাবাজি করে। চাঁদা আদায় করে ওরা অকথ্য জুলুমের মাধ্যমে। একটি জাতীয় পত্রিকার প্রতিবেদনে এসেছে, রাজধানী পুরানা পল্টনে একটি বাসায়

সরকারি চাকরিতে বয়স বাড়ানোর যৌক্তিকতা

সামিউল ইসলাম: কর্মসংস্থানের সৃষ্টি করা রাষ্ট্রের অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ কাজ। অথচ বাংলাদেশে উচ্চ শিক্ষা গ্রহন করে অধিকাংশই বেকারত্ব সমস্যাই ভোগছে। উচ্চ শিক্ষা গ্রহন করেও তাদেরকে বেকার থাকতেই হচ্ছে। তাহলে এ উচ্চ শিক্ষার লাভ কী? বেকারত্ব সমস্যার অন্যতম কারন হচ্ছে বাংলাদেশে সরকারি চাকরিতে প্রবেশের বয়সসীমা ৩০ বছর। যা কি না বিশ্বের কোথাও নেই। এদেশের  শিক্ষা ব্যবস্থায় একজন

আন্তর্জাতিক নারী দিবস ও নারী অধীকার । সফিউল্লাহ আনসারী

৮ মার্চ আন্তর্জাতিক নারী দিবস (International Women’s Day (IWD)।বিশ্বের অন্যান্য দেশের মতো বাংলাদেশেও গুরত্বের সাথে পালিত হবে এ দিবসটি।অবশ্য এর আগে‘আন্তর্জাতিক কর্মজীবী নারী দিবস’ (উইকিপিডিয়া) হিসেবে পালিত হতো।আর ১৫ অক্টোবর আন্তর্জাতিক গ্রামীণ নারী দিবস। এবারের প্রতিপাদ্য বিষয়-অধীকার মর্যাদায়,নারী-পুরুষ সমানে সমান’। নারী দিবস মূলত নারী সমাজের পারিবারিক,সামাজিক ও রাষ্ট্রীয়ভাবে সর্বক্ষেত্রে তাদের অধীকার এবং সুযোগ-ক্ষমতায়নে পুরুষের সমান

ঐতিহাসিক ৭ মার্চের ভাষন তারুণ্য ভাবনায় এগিয়ে চলার প্রত্যয়

আবুল বাশার শেখ আজ ঐতিহাসিক ৭ই মার্চ। বাংলাদেশের স্বাধীনতা মুক্তি সংগ্রামের ইতিহাসে স্বর্ণাক্ষরে লেখা অবিস্মরণীয় একটি দিন। ইতিহাসের পাতা থেকে এ দিনটি নিয়ে দু’কলম লেখার দুঃসাহস করলাম, কেননা আমার জন্ম ঐ সময় হয়নি। দিনটি ছিল বসন্তের এক পাতাঝরা শুকনো টান টান দিন। কিন্তু আর দশটি দিনের চেয়ে আলাদা ছিল একাত্তরের ৭ই মার্চ, একটু ভিন্ন রকম।

ইদানিং পাঠক এবং পাঠাগার l সফিউল্লাহ আনসারী

    বইয়ের বিপুল পরিমান সংগ্রহশালা মানেই লাইব্রেরী বা পাঠাগার।একসময় বই পড়ুয়াদের আড্ডা এবং পাঠের নেশার স্থান এই পাঠাগার।সময়ে সাথেই যেনো এই ঐতিহ্য হারাতে বসেছে তার গৌরব।বই পড়ার জন্য বিশেষ করে বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান কিংবা শহর-গ্রাম-মহল্লায় সরকারি-বেসরকারি,ব্যাক্তিগত উদ্যোগে স্থাপিত হতো নানা স্বাদের পাঠের বই নিয়ে পাঠাগার। এখনো ব্যক্তিগত বা কোনো দেশী-বিদেশী সংস্থার সহায়তায় প্রতিষ্ঠিত হচ্ছে

ভালো বন্ধু বই  | সফিউল্লাহ আনসারী

  বই মানুষের ভালো বন্ধু।বই পড়লে জ্ঞাণ বাড়ে।বই পড়লে মানুষক দক্ষতা বৃদ্ধি পায়। একটা বই একজন মানুষের জীবনে পরিবর্তন আনতে পারে।সৃজনজনশীল ও সৃষ্টিশীলতার জন্য বই অপরিহার্য।যারা নিয়মিত বই পড়েন বৃদ্ধ বয়সেও তাদের মস্তিষ্ক থাকে তীক্ষ্ণ ও স্বাভাবিক ।অথচ আমাদের সমাজে এই বই পড়ার মতো গুরুত্বপুর্ণ বিষয়ে অনিহা লক্ষনীয়।এভাবে পাঠ অভ্যাসের প্রতি অনীহা বাড়তে থাকলে ভবিষ্যত

বিজয়ের গৌরব

-:সফিউল্লাহ আনসারী:- আমার দেশ বাংলাদেশ।শহীদ গাজীর দেশ বাংলাদেশ।ফুল,পাখী আর নদীর দেশ বাংলাদেশ। পীর- আওলিয়ার দেশ বাংলাদেশ। বিশ্বের মানচিত্রে অপরুপা সৌন্দর্যের লীলা ভূমি আমার বাংলা-আমার এই দেশ বাংলাদেশ। বাংলাদেশ নামের এইযে চিরচেনা স্বাধীন মানচিত্র তা অর্জন করতে দিতে হয়েছে লাখো প্রাণ,মা-বোনের ইজ্জতের চরম মূল্য।ইতিহাস-ঐতিহ্যে ভরপুর আমার দেশের মুক্তি আর স্বাধীনতার ইতিহাস রক্তে লেখা ইতিহাস। মায়ের ভাষা

১০ ডিসেম্বর বিশ্ব মানবাধীকার দিবস

 – সফিউল্লাহ আনসারী           মানবাধীকার বিষয়টি বর্তমান বিশ্বের একটি আলোচিত-সমালোচিত বিষয়। যুগ যুগ ধরে মানুষ তাদের অধীকারের জন্য আন্দোলন সংগ্রাম করেছে।মানবাধীকারের বিষয়টি সকল ধর্ম,বর্ণ,জাতী নির্বিশেষে সব পর্যায়ের মানুষের জন্য একটি অপরিহার্য-গুরুত্বপুর্ণ ও আলোচিত বিষয় হিসেবে পরিগনীত হলেও পৃথিবী জুড়ে আজ বিপন্ন মানবতা।বিপন্ন নির্যাতিত-নিপিড়িত জনগোষ্ঠির অধীকার আদায়ের জন্য কাজ করে যাচ্ছে অনেক মানবাধীকার সংগঠন।কোন দেশে যেকোন