আন্তর্জাতিক

হিজড়াদের বিয়ের স্বীকৃতি দিলেন পাকিস্তানের আলেমরা

পাকিস্তানের ৫০ জন শীর্ষ আলেম তৃতীয় লিঙ্গের (হিজড়া) মানুষদের বিয়ে, সম্পত্তির উত্তরাধিকার ও কবরস্থানে দাফনের অধিকার ইসলামি আইন স্বীকৃতি দেয় বলে ফতোয়া দিয়েছেন।

ফতোয়ায় তারা জানিয়েছেন, যেসব তৃতীয় লিঙ্গের মানুষ মেয়ে হিসেবে জন্ম নেওয়ার পরবর্তীতে ‘পুরুষের বৈশিষ্ট্য’ দেখা যায় তবে তারা কোনো নারীকে বিয়ে করতে পারবেন। একইভাবে যারা ছেলে হিসেবে জন্ম নিয়ে পরবর্তীতে ‘নারীত্বের বৈশিষ্ট্য’ দেখা যায় তারা কোনো পুরুষকে বিয়ে করতে পারবেন।

তৃতীয় লিঙ্গের মানুষেরা ‘নারী-পুরুষ দুই লিঙ্গের বৈশিষ্ট্য’ ধারণ করে এবং তারা বিবাহবন্ধনে আবহ হন না।

আলেমদের  এই ফতোয়ার পর পাকিস্তানে তৃতীয় লিঙ্গের কোনো মানুষের বিয়ে বাস্তবে সম্ভবপর নয়। দেশটিতে সমলিঙ্গের বিয়ে আইনসম্মত নয়। এর শাস্তি যাবজ্জীবন কারাদণ্ড। এ ছাড়া তৃতীয় লিঙ্গের কাউকে রাষ্ট্রীয় আইডেনটিটি কার্ডে স্বীকৃতি দেওয়া হয় না।

নতুন এই ফতোয়াতে ঘোষণা করা হয়, কোনো তৃতীয় লিঙ্গের ব্যক্তিকে অপমান বা কটূক্তি করা হারাম। পারিবারিক সম্পত্তির উত্তরাধিকার হওয়ার অধিকার ও মৃত্যুর পর কবরস্থানে তাদের দাফন করার অধিকার থেকে কেউ বঞ্চিত করতে পারবে না।

সূত্র : দ্য টেলিগ্রাফ

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button